শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:০৯ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :

সোনম শিং এর আত্মহত্যা নিয়ে যা বললেন সোনম আক্তার

সোনম আক্তার / ২০৯ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ১৪ জুন, ২০২০

সোনম আক্তার :

সুশান্ত শিং রাজপুত, ৩৪ বছর বয়স, এত হ্যান্ডসাম, লাখ লাখ ভক্ত, বাড়ি গাড়ি সড় আছে, কিন্তু ডিপ্রেশন থেকে আত্মহত্যা করলেন। আমাদের চারপাশে অনেকে আছেন যারা বলেন ডিপ্রেশন হচ্ছে ফালতু চিন্তা । যাদেরকে আমি ডিপ্রেসড এই কথা বললে একমাত্র উপদেশ দেয় “আরে এগুলা বাদ দাও এসব চিন্তা কইরো না”। উনারা জানেন না ডিপ্রেশন কি, কেন হয়, কিভাবে কাজ করে। যখন কেউ ডিপ্রেসড থাকে, তখন সে যদি কারো সাথে কথা বলতে চায়, এবং ওই মানুষটা যদি তাকে “বাদ দাও ফালতু চিন্তা” এই কথা বলে ডিসমিস করে দেয় তাহলে ওই মানুষটা পরবর্তীতে আর কারো সাথে ডিপ্রেশন নিয়ে কথা বলতে ইজি ফিল করে না। এরকম কথা না বলতে না বলতে একসময় অনেক বেশি মেন্টাল প্রেশারে অনেকে হয়তো সুইসাইড করে, অনেকে বেঁচে থেকেও জীবন্মৃত অবস্থায় চলে যায়, জীবনের আনন্দ, ইচ্ছা হারিয়ে ফেলে। এর পাশাপাশি মানুষের জাজমেন্ট, যেমন “তুমি ফেসবুকে সারাদিন ছবি আপলোড করো কেন, তুমি সারাদিন রান্না করো কেন, তুমি মোটা কেন, তুমি সিঙ্গেল কেন, তোমার বাচ্চা নাই কেন, তুমি এরকম জামা পরো কেন, তুমি সারাদিন বাইরে বাইরে ঘুর কেন” ইত্যাদি ডিপ্রেসড মানুষকে আরো খারাপ অবস্থার মধ্যে ফেলে দেয়।

তাই কেউ যদি ডিপ্রেসড থাকেন দয়া করে চুপ থাকবেন না, শেয়ার করুন। আর কেউ যদি আপনার সাথে তার ডিপ্রেশন শেয়ার করে দয়া করে জাস্ট শুনুন। উপদেশ দিবেন না। মনে রাখবেন সে আপনার উপদেশ চায় নাই। সহমর্মী হোন, তাকে বলুন আমরা আছি তোমার সাথে। এইটুকুই সে শুনতে চায়। তাকে ভুলেও বলবেন না “তোমার কাজ নাই তাই এরকম শয়তানী চিন্তা মাথায় ঘুরছে, আমার তো এরকম ফালতু চিন্তা জীবনেও মাথায় আসে না, আরে বাইরে যাও ঘুরে আস, এগুলো চলে যাবে”। কখনো না। আমি নিজে ক্লিনিক্যাল ডিপ্রেশন এর মধ্য দিয়ে গিয়েছি। আমি পর পর দুইবার মেডিসিন এবং সাইকোলজিক্যাল ট্রিটমেন্ট এর মধ্য দিয়ে গিয়েছি অনেক মাস। আমি জানি ডিপ্রেশন কিরকম।

এই সময়ই আমরা খুব কঠিন অবস্থার মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। ভবিষ্যতের জন্য দুশ্চিন্তা, হতাশা, পারিবারিক সমস্যা, গৃহবন্দিত্ব ইত্যাদি সবকিছু নিয়ে আমাদের মানসিক অবস্থা দিন দিন খারাপ হচ্ছে। তাই যে যেভাবে পারেন ভালো থাকেন। যদি টিকটক বানাতে ইচ্ছে করে টিকটক বানান, যদি রান্না করতে ইচ্ছে করে রান্না করেন, যদি ফেসবুকে ছবি আপলোড দিতে ইচ্ছা করে ছবি আপলোড দেন। মোটকথা যেভাবেই পারেন নিজেকে ভালো রাখেন। অন্য মানুষ কি বলে সেটা কানে নিবেন না। ডিপ্রেশন খুব খারাপ। এর সাথে লড়াই করুন প্লিজ। এবং যারা ডিপ্রেশন বুঝেন না তারা দয়া করে নিজের মুখ বন্ধ রাখেন। মনে রাখবেন আপনার একটা জাজমেন্ট, আপনার একটা নেগেটিভ কমেন্ট, আপনার একটা পাত্তা না দেওয়ার ভাব একজন মানুষকে আত্মহত্যা করার দিকে উৎসাহিত করতে পারে। তাই কথা বলুন, শেয়ার করুন, এবং অন্যকে জাজ করবেন না।

যদি কারো ডিপ্রেশন নিয়ে প্রবলেম থাকে এবং কথা বলতে চান, এবং চারপাশে কাউকে না পান তাহলে আমার সাথে শেয়ার করতে পারেন। আমি যখনই এভেইলেবল থাকবো আমি শোনার চেষ্টা করব এটলিস্ট।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com